‘ডিবি পরিচয়ে’ মাইক্রোবাসে তুলে নেয়া যুবকের খোঁজ মিলছেনা!

নোয়াখালী : নোয়াখালীর মাইজদীতে বড় মসজিদ মোড়ের মা-মনি হার্ডওয়ার অ্যান্ড স্যানেটারির ভেতরে থেকে তাজুল ইসলাম জুয়েল (৩৫) নামের এক যুবককে ডিবি পরিচয়ে তুলে নিয়ে যাওয়ার অভিযোগ উঠেছে। তবে পুলিশ জানিয়েছে, ডিবি পরিচয়ে কাউকে গ্রেপ্তার বা আটক করার খবর তাদের কাছে নেই।

গতকাল বুধবার সন্ধ্যা ৭টায় এ ঘটনা ঘটে। ঘটনার পর থেকেই জুয়েলের মুঠোফোন নম্বর বন্ধ। তার কোনো খোঁজ পাচ্ছেন না পরিবারের অন্যরা।

জানা গেছে, জুয়েল জেলার বড় মসজিদ রোডে গত ৮ মাস ধরে ব্যবসা করে আসছেন জুয়েল। প্রতিদিনের মতো বুধবারও তিনি তার ব্যবসা প্রতিষ্ঠানে কাজ করছিলেন। ওইদিন সন্ধ্যা ৭টার দিকে একটি সাদা মাইক্রোবাসে করে সাত থেকে আটজনের একটি দল জুয়েলের দোকানে প্রবেশ করে ও তার সঙ্গে ডিবি পরিচয়ে কথা বলে। এরপর তার বিরুদ্ধে অভিযোগ আছে ও ঢাকায় নিয়ে যাওয়া হবে-এ কথা বলে মাইক্রোবাসে উঠিয়ে নিয়ে যায়। জুয়েলকে নিয়ে যাওয়ার কিছুক্ষণ পর থেকেই তার মুঠোফোন নম্বরটি বন্ধ পাওয়া যায়।

ঘটনার পরপরই জুয়েলের পরিবার স্থানীয় সুধারাম থানায় যোগাযোগ করলে পুলিশ জানায়, ডিবি পরিচয়ে এ ধরনের কাউকে আটক বা গ্রেপ্তার করার কোনো তথ্য তাদের কাছে নেই।

এদিকে, দোকানের সিসিটিভির ফুটেজে দেখা গেছে, সাত থেকে আটজনের সাদা পোশাকের একদল লোক সন্ধ্যায় মুখে মাস্ক পরে জুয়েলের দোকানে প্রবেশ করে। এরপর তারা তার সঙ্গে কথা বলে ও জুয়েলকে সঙ্গে নিয়ে দোকানের বের হয়। সেখানে কিছুক্ষণ কথা বলার পর জুয়েলকে মাইক্রোবাসে তুলে জেলার প্রধান সড়ক ধরে ঢাকামুখী সড়কে রওনা হয়ে যায়। মাইক্রোবাসের নম্বর ছিল ঢাকা মেট্রো চ-৫২১৯৩৭।

ঘটনার পরপরই নিখোঁজ জুয়েলের বাবা, অবসরপ্রাপ্ত সেনা কর্মকর্তা মো. গিয়াস উদ্দিন সুধারাম থানায় সাধারণ ডায়েরি (জিডি) করেছেন।

নোয়াখালী পুলিশ সুপার মো. আলমগীর হোসেন বলেন, ‘জুয়েলকে জেলা আইন-শৃঙ্খলা বাহিনীর কোনো সংস্থা আটক বা গ্রেপ্তার করেনি। তবে কারা তাকে তুলে নিয়ে গেছে, সে বিষয়ে জানতে তদন্ত ও জুয়েলকে উদ্ধারে অভিযান শুরু হয়েছে।’

      Probashi Barta Corporation (PBC24 - USA)