জাতীয় অধ্যাপক আনিসুজ্জামান আর নেই

জাতীয় অধ্যাপক আনিসুজ্জামান মারা গেছেন, ইন্না লিল্লাহি ওয়া ইন্না ইলাহি রাজিউন। আজ বৃহস্পতিবার (১৪ মে) বিকেল ৪টা ৫৫ মিনিটে রাজধানী ঢাকার সম্মিলিত সামরিক হাসপাতালে (সিএমএইচ) শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন তিনি। তার বয়স হয়েছিল ৮৩ বছর।

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড. মো. আখতারুজ্জামান তার মৃত্যুর খবর নিশ্চিত করেন। বার্ধক্যজনিত নানা রোগে বেশ কিছুদিন ধরে  হাসপাতালে চিকিৎসাধীন ছিলেন তিনি। এর আগে মঙ্গলবার (১২ মে) তার ছেলে আনন্দ জামান  সাংবাদিকদের জানান তার বাবার হার্ট ও কিডনিতে জটিলতা রয়েছে।

অধ্যাপক আনিসুজ্জামানের জন্ম ১৯৩৭ সালের ১৮ ফেব্রুয়ারি পশ্চিমবঙ্গের চব্বিশ পরগনা জেলার বসিরহাটে। তার বাবা এ টি এম মোয়াজ্জেম ছিলেন বিখ্যাত হোমিও চিকিৎসক।

অধ্যাপক আনিসুজ্জামান ১৯৫৬ সালে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে বাংলা ভাষা ও সাহিত্যে অনার্স ও ১৯৫৭ সালে এম.এ. পাস করেন। এরপর ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের বাংলা বিভাগের শিক্ষক হিসেবে যোগ দেন। বাংলা একাডেমির যেকোনো সিদ্ধান্তের সাথে তিনি সব সময় জড়িত ছিলেন। বাংলা বানান রীতির অভিধানসহ যেকোন প্রকল্পে তার অবস্থান ছিল অবধারিত।

তিনি ১৯৭১ সালে বাংলাদেশের মুক্তিযুদ্ধে প্রত্যক্ষভাবে অংশগ্রহণ করেন এবং স্বাধীনতা পরবর্তী সময়ে প্রতিটি গণতান্ত্রিক আন্দোলন-সংগ্রামে অবদান রেখেছেন। ১৯৭১ সালে মুজিব নগর সরকারের পরিকল্পনা কমিশনেরও সদস্য ছিলেন তিনি। এরপর ১৯৭২ সালে বাংলাদেশের সংবিধানের বাংলা ভাষায় অনুবাদের যে কমিটি ছিল সেটার নেতৃত্বে ছিলেন তিনি। ১৯৯১ সালে গঠিত গণ আদালতের একজন অভিযোগকারী ছিলেন আনিসুজ্জামান।

      Probashi Barta Corporation (PBC24 - USA)