সাংবাদিক রাজুর বিরুদ্ধে অপপ্রচার, মালয়েশিয়া প্রবাসীদের ক্ষোভ

মালয়েশিয়ায় চলমান লকডাউনের মধ্যে প্রবাসীদের খাদ্য সহায়তার ইস্যুতে নামসর্বস্ব একটি অনলাইনে ‘মালয়েশিয়ায় বাংলাদেশ দূতাবাসের বিরুদ্ধে উস্কানিমূলক পোস্ট, কে এই রাজু’ শিরোনামে প্রকাশিত খবরে ক্ষুব্ধ প্রবাসী বাংলাদেশীরা। খবরটি সামাজিক যোগাযোগের মাধ্যমে ছড়িয়ে পড়ার পরপর-ই ক্ষুব্ধ প্রতিক্রিয়া দেখিয়ে কমেন্ট করতে থাকে প্রবসীরা। বেশিরভাগ কমেন্টেই জানতে চাওয়া হয় খাদ্য সহায়তার ইস্যুতে উস্কানির মতো কি লেখা হয়েছে ? সাধারণ প্রবাসী বাংলাদেশীরা লেখেন, সাংবাদিক মোস্তফা ইমরান রাজু’র বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্রমুলকভাবে এই খবরটি প্রকাশ করা হয়েছে। কারন সে সবসময় সত্য ঘটনা তুলে ধরে এবং তা সকলের সামনে প্রকাশ করে।

উল্লেখ্য করোনা ভাইরাস মোকাবেলায় মালয়েশিয়া সরকারের নেয়া মুভমেন্ট কন্ট্রোল অর্ডারে স্থবির হয়ে পড়েছে জনজীবন। কর্মহীন প্রবাসী বাংলাদেশীদের মাঝে দেখা দিয়েছে খাদ্য সংকট। সংকট এড়াতে খাদ্য সহায়তার জন্য একটি ফর্ম ছাড়ে কুয়ালালামপুরের বাংলাদেশ হাইকমিশন। মুহূর্তেই হাজার হাজার মানুষ ফর্ম পুরন করে। যদিও কয়েকদিন পর ফর্মটি সরিয়ে নেয়া হয়।
তবে ফর্ম পুরন করার পরও খাবার না পাওয়ার অভিযোগ ওঠে সাধারণ প্রবাসী বাংলাদেশীদের মাঝে। সামাজিক যোগাযোগের মাধ্যমে অনেক প্রবাসী হাইকমিশনের বিরুদ্ধে ক্ষোভ প্রকাশ করে। প্রবাসীদের পক্ষ হয়ে সাংবাদিক মোস্তফা ইমরান তার ‘প্রবাসী বাংলাদেশীদের খবর’ গ্রুপে একটি পোস্ট দেন যেখানে লেখা হয় ” ফর্ম পুরন করলাম ৩ (তিন) দিন হয়ে গেলো, এখনও তো হাইকমিশন থেকে কোন রেসপন্স পেলাম না, তাহলে কি রোগী মারা যাওয়ার পর কি ডাক্তার আসবে?”
সাংবাদিক ইস্যুতে তিনি লেখেন, ” সাংবাদিক কখনও দালাল হতে পারে না, দালাল কখনও সাংবাদিক হতে পারে না”

মুলত তার এ লেখা’কে স্ক্রিন শট দিয়ে ছবিসব নামসর্বস্ব একটি অনলাইনে সংবাদ প্রকাশ করা হয়। যে অনলাইনের কোন ঠিকানা দেয়া নেই। প্রতিবেদক হিসাবে নাম দেয়া হয়েছে অভিজিত ব্যানার্জি নামে একজনের নাম। তবে এই নামে কোন প্রবাসী সাংবাদিকের সন্ধান মেলেনি। বাংলাদেশ কমিউনিটি প্রেস ক্লাব, মালয়েশিয়ার পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে মালয়েশিয়ায় এ নামে কোন সাংবাদিক আছে বলে তাদের জানা নেই।

এ নিয়ে কথা হয় মালয়েশিয়া আওয়ামী লীগের আহ্বায়ক রেজাউল করিম রেজার সঙ্গে, তিনি বলেন, মালয়েশিয়া’তে একটা জিনিস আমার খুব খারাপ লাগে সেটা হলো একজন আরেকজনের বিরুদ্ধে বিষোদগার করে, গত কয়েকদিন আগে দেখলাম সাংবাদিক আহমাদুল কবীরের বিরুদ্ধে রিপোর্ট আবার আজকে দেখছি সাংবাদিক মোস্তফা ইমরান রাজুর বিরুদ্ধে রিপোর্ট। আমার মনে হয় এর পেছনে কেউ কল কাঠি নাড়ছে। আর যে বা যারাই এটি করছেন, ঠিক করছেন না এটা বলতে পারি। সবার শুভ বুদ্ধির উদয় হোক এই কামনা করছি।”
মালয়েশিয়া আওয়ামী লীগের যুগ্ন-আহ্বায়ক ওহিদুর রহমান বলেন, “নিরপেক্ষ থেকে সংবাদ পরিবেশনে সাংবাদিক রাজু সবসময় সক্রিয়। দলমত নির্বেশেষে সবার কাছে সে গ্রহনযোগ্য, তাকে নিয়ে এ ধরনের লেখা দু:খজনক।”

মালয়েশিয়া আওয়ামী লীগের যুগ্ন-আহ্বায়ক কামরুজ্জামান কামাল বলেন, “রাজুর বিরুদ্ধে যে অভিযোগ আনা হয়েছে তা সম্পুর্ণ মিথ্যা ও বিভ্রান্তিকর।”

স্বেচ্ছাসেবকলীগ সভাপতি বিএম বাবুল হাসান বলেন, “নিউজে আমার নাম ব্যবহার করা হয়েছে অথচ আমি কিছুই জানি না। এতো বছর ধরে মালয়েশিয়ায় আছি এ নামে কোন রিপোর্টারকে ও চিনি না। আমি এর তীব্র নিন্দা জানাচ্ছি বলে মন্তব্য করেন, তিনি।

জাতীয় শ্রমিকলীগ মালয়েশিয়ার শাখার সভাপতি নাজমুল ইসলাম বলেন, মিথ্যা তথ্য দিয়ে একটি সংবাদ প্রকাশ হয়েছে যে প্রতিবেদককে কেউ চেনে না এবং যে পত্রিকার কোনা ঠিকানা নেই। এ ধরনের পত্রিকার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়া উচিত।”

মালয়েশিয়া বিএনপি’র সভাপতি বাদলুর রহমান খান বলেন, ” সত্য কথায় লেখায় রাজু’র বিরুদ্ধে যে সংবাদ প্রচার করা হয়েছে তার তীব্র নিন্দা জানাচ্ছি, সে একজন প্রফেশনাল সাংবাদিক, তাকে ছোট করে যাদেরকে প্রোমোট করা হয়েছে বরং তারাই হাইকমিশনের দালাল, এটা আমার মতো সবাই জানে”
জোহর বাংলাদেশ কমিউনিটি’র সভাপতি এস এম আহমেদ বলেন, ” সাংবাদিক রাজু আরটিভি’র মাধ্যমে সবসময় প্রবাসীদের সঠিক খবর দিয়ে যাচ্ছে, সত্য বলায় তার বিরুদ্ধে আজ কথিত অনলাইনে নিউজ করা হলো, এটি দু:খজনক। খাদ্য সমস্যা এখন মালয়েশিয়া প্রবাসীদের সবচেয়ে বড় সমস্যা বলে মন্তব্য করেন, তিনি।”

পেনাং প্রবাসী মো: ইউনুস বলেন, “সত্য কথা লিখলেই তাকে বিএনপি জামায়াত বানিয়ে দেয়া হয়। সাংবাদিক রাজু প্রবাসীদের খাবার সঙ্কটে হাইকমিশনের ভুমিকা নিয়ে প্রশ্ন তুলেছে, এটা শুধু ওনার নয় এখানকার লাখো মানুষের প্রশ্ন।”

উল্লেখ্য মোস্তফা ইমরান রাজু মালয়েশিয়ার আরটিভি’র প্রতিনিধি হিসাবে সুনামের সঙ্গে কাজ করছে এবং বর্তমানে বাংলাদেশ কমিউনিটি প্রেসক্লাবের সহ-সভাপতি । ইংরেজি সাহিত্যে অনার্স ও মাস্টার্স শেষ করে ২০১১ সালে আরটিভি’তে নিউজ রুম এডিটর হিসাবে যোগদান করে। সেখান থেকে ২০১৪ সালের ২৬ ডিসেম্বর আরটিভি’র প্রতিনিধি হিসাবে মালয়েশিয়ায় আসে। বর্তমানে আরটিভি’র পাশাপাশি কুয়ালালামপুরের মসজিদ জামেক এলাকায় একটি থ্রি-স্টার মানের হোটেলে ম্যানেজার হিসাবে কর্মরত আছেন।

      Probashi Barta Corporation (PBC24 - USA)