এক রাতেই ‘কোটিপতি’ ফুচকা বিক্রি করা জয়সাল

সকালে ক্রিকেট মাঠে অনুশীলন। রাতে মাঠের বাইরে ফুচকা বিক্রি।এভাবেই দিন চলত যশস্বী ভুপেন্দ্র জয়সালের। উত্তর প্রদেশের ছোট্ট শহর ভাদোহি থেকে জীবিকার সন্ধানে মুম্বাই আসা। সেখানে চলে জীবন যুদ্ধ। পরিচিতদের বাসায় জায়গা হয় না। পরিচিত আরেক চাচা তাকে নিয়ে যান আজাদ ময়দানে। সেখানে মাঠকর্মীদের সঙ্গে তাঁবুতে থাকার জায়গা মেলে। কিন্তু শর্ত পয়সা দিতে হবে। তাইতো মাঠের বাইরে কাজ শুরু করেন। দিনে অনুশীলন। রাতে মাঠের বাইরে ফুচকা বিক্রি।

এভাবেই জীবনে চলছিল কঠিন সংগ্রাম। ওই সংগ্রামের মাঝে চালিয়ে গেছেন ক্রিকেট। সেই ক্রিকেটই পাল্টে দিয়েছে তার জীবন। বিজয় হাজারে ট্রফিতে মুম্বাইয়ের হয়ে ৫০ ওভারের ক্রিকেটে হাঁকান ডাবল সেঞ্চুরি। সর্বকনিষ্ঠ ক্রিকেটার হিসেবে ডাবল সেঞ্চুরির রেকর্ড গড়ে আলোড়ন সৃষ্টি করেন জয়সাল।

এর আগে স্কুল ক্রিকেট এবং মুম্বাইয়ের জুনিয়র ক্রিকেটে দারুণ সব পারফরম্যান্সে জয়সাল নজর কাড়েন। জায়গা পান ভারত অনূর্ধ্ব-১৯ দলে। বয়সভিত্তিক দলে পারফরম্যান্স করলেও বিজয় হাজারে ট্রফির পারফরম্যান্স তাকে নিয়ে আসে লাইমলাইটে।

সেই পারফরম্যান্সের সুবাদে এবার জয়সাল পেয়েছেন আইপিএলের দল। বৃহস্পতিবার তাকে নিয়ে কম কাড়াকাড়ি হয়নি। তার বেইজ প্রাইজ ছিল ২০ লাখ রুপি। শুরুতে কলকাতা তার প্রতি আগ্রহ দেখায়। সেই লড়াইয়ে যোগ দেয় মুম্বাই। তার দাম উঠে ৫০ লাখ রুপি। লড়াইয়ে পাঞ্জাব তৃতীয় দল হিসেবে যোগ দেয়। এবার জয়সালের দাম ৮০ লাখ। কলকাতা আবার তাকে দলে নিতে আগ্রহ প্রকাশ করে। এবার কোটিপতি হয়ে যান বাঁহাতি ব্যাটসম্যান।

চতুর্থ দল হিসেবে লড়াইয়ে যোগ দেয় রাজস্থান। চার ডাকেই তার দাম এক লাফে ২ কোটিতে। কলকাতা তখনও হাল ছাড়ে না। জয়সালকে পেতে তারা ২ কোটি ২০ লাখ রুপি দিতে চায়। রাজস্থান খরচ করতে চায় আরও ২০ লাখ। শেষমেশ ২ কোটি ৪০ লাখ রুপিতে রাজস্থান দলে ভেড়ায় মুম্বাইয়ের এই কিশোরকে। এভাবে এক রাতেই কোটিপতি বনে গেলেন জয়সাল।

অক্লান্ত পরিশ্রম, ক্রিকেটের প্রতি নিখাদ ভালোবাসা, স্বপ্ন ছোঁয়ার তীব্র বাসনা জয়সালকে নিয়ে গেছে সাফল্যের শীর্ষে। এবার বিশ্বের সেরা ফ্রাঞ্চাইজি লিগ মাতানোর পালা কোটিপতি হওয়া এ তরুণের।

      Probashi Barta Corporation (PBC24 - USA)