শিক্ষার্থীদের আন্দোলন সরকার বিরোধী আন্দোলনে রূপ নিতে পারে : ডেইলি মেইল

সরকারের কয়েকজন মন্ত্রী ছাত্রদেরকে ক্লাসে ফেরার আহ্বান জানিয়েছেন। তাদের আশঙ্কা এই বিক্ষোভ অপ্রত্যাশিতভাবে সরকার বিরোধী আন্দোলনে রূপ নিতে পারে। কিন্তু মন্ত্রীর আবেদনে কোনো প্রভাব পড়েনি বললেই চলে। চলমান ছাত্রবিক্ষোভ নিয়ে এসব কথা লিখেছে লন্ডনের প্রভাবশালী পত্রিকা ডেইলি মেইল। এতে আরো বলা হয়েছে, ঢাকার জিগাতলায় বিক্ষোভরত টিনেজ শিক্ষার্থীদের ওপর রাবার বুলেট ও কাঁদানে গ্যাস ছুড়েছে পুলিশ।

এছাড়া তাদের ওপর হামলা চালিয়েছে সরকারপন্থি একদল নেতাকর্মী। এতে আহত কয়েকজনকে নিকটবর্তী হাসপাতালে নিয়ে চিকিৎসা দেওয়া হচ্ছে। সামাজিক মিডিয়াগুলোতে আন্দোলনরত শিক্ষার্থীদের ওপর ক্ষমতাসীন দলের নেতাকর্মীদের হামলার ইমেজ ও ছবিতে সয়লাব হয়ে গেছে। এতে নতুন করে আবার ক্ষোভের জন্ম দিয়েছে।

এদিকে বিক্ষুব্ধ ছাত্রদের আন্দোলনকে দমিয়ে দিতে বাংলাদেশ কর্তৃপক্ষ দেশজুড়ে মোবাইল ইন্টারনেট বন্ধ করে দিয়েছে। ছাত্রদের ওপর রাবার বুলেট ও কাঁদানে গ্যাস ছোড়ার কথা অস্বীকার করেছে পুলিশ। তবে হাসপাতালের স্টাফরা বলছেন, কয়েক ডজন মানুষ আহত হয়েছেন। তাদের অনেকের অবস্থা গুরুত্বর। তাদের অনেকের গায়ে রাবার বুলেটের ক্ষত আছে। ছাত্রদের ওপর নিজেদের ক্যাডারদের হামলার অভিযোগ অস্বীকার করেছে ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগ।

ডেইলি মেইলের রিপোর্টে আরো বলা হয়েছে- দ্রুত গতির একটি বাসের নিচে পড়ে দু’কলেজ শিক্ষার্থী মারা যাওয়ার পর রাজধানীর নাজুক সড়ক নিরাপত্তার বিরু-েদ্ধ বিক্ষোভে নামে অন্য স্কুল কলেজের শিক্ষার্থীরা। এতে রাজধানী কার্যত দেশের অন্য স্থান থেকে বিচ্ছিন্ন হয়ে পড়ে। শনিবার ঢাকার জিগাতলায় বিক্ষোভ করছিল একদল শিক্ষার্থী। এ সময় তা সহিংস হয়ে ওঠে। কমপক্ষে ১০০ মানুষ আহত হয়।
প্রত্যক্ষদর্শীরা বলেছেন, পুলিশ সেখানে বিক্ষোভরত ছাত্রদের ওপর রাবার বুলেট ছুড়েছে। কাঁদানে গ্যাস ছুড়েছে। এ সময় হামলায় যোগ দেয় সরকারপন্থি নেতাকর্মীরা। দেশে সর্বোচ্চ প্রচলিত একটি পত্রিকার উদ্ধৃতি দিয়ে বলা হয়, শনিবার দিনের শেষের দিকে পরবর্তী ২৪ ঘন্টা থ্রি-জি ও ফোর-জি ইন্টারনেট সার্ভিস বন্ধ করে দেয়া হয়েছে। এ জন্য মোবাইলে ইন্টারনেট সুবিধা না পেয়ে বাংলাদেশীদের মন্তব্যে সয়লাব হয়ে গেছে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম।

      Probashi Barta Corporation (PBC24 - USA)