Home>সকল সংবাদ>প্রবাসী>আমেরিকা>নিউইয়র্কে প্রবাসীদের তোপের মুখে ইমরান এইচ সরকার : লাঞ্ছিত
আমেরিকা তাজা

নিউইয়র্কে প্রবাসীদের তোপের মুখে ইমরান এইচ সরকার : লাঞ্ছিত

নিউইয়র্কে ব্রুকলীনের চার্চ-ম্যাকডোনাল্ড এভিনিউতে প্রবাসী বাংলাদেশীদের হাতে লাঞ্ছিত হয়েছেন গণজাগরণ মঞ্চের মুখপাত্র ইমরান এইচ সরকার। মঙ্গলবার (১৪ আগষ্ট) স্থানীয় সময় সন্ধ্যায় এই ঘটনা ঘটে। ইমরান এইচ সরকারকে লাঞ্ছিতের ভিডিওটি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে ভাইরাল হয়েছে। এ ঘটনায় পুরো নিউইয়র্ক জুড়ে বাংলাদেশী কমিউনিটিতে মিশ্র প্রতিক্রিয়া সৃষ্টি হয়েছে।

জানা যায়, বাংলাদেশী অধ্যুষিত ব্রুকলীনের চার্চ-ম্যাকডোনাল্ড এভিনিউতে এক আত্মীয়ের সঙ্গে ঘুরতে বের হয়েছিলেন যুক্তরাষ্ট্রে অবস্থানরত ইমরান এইচ সরকার। এ সময় ফুটপাতে কয়েকজন যুবক তাকে ঘিরে ধরেন। প্রবাসীদের তোপের মুখে পড়া ইমরানকে উদ্দেশ্য করে একপর্যায়ে এক যুবক বলেন- এই যে বিচারবহির্ভূত হত্যাকান্ড চলছে আপনারা কিছুই বলছেন না। জবাবে ইমরান এইচ সরকার অবশ্য বারবার বলেন, যুবকের অভিযোগ সত্য নয়। তিনি যে কোন অন্যায়ের বিরুদ্ধে সোচ্চার রয়েছেন। ভিডিওতে দেখা যায়, এ সময় আক্রমণকারী এক যুবকের কাঁধে হাত বুলিয়ে ইমরান হাসতে হাসতে জানতে চান বিচারবহির্ভূত হত্যাকান্ড কাদের বিরুদ্ধে হচ্ছে? জবাবে ওই যুবক বলেন, কেন, বিএনপি-জামায়াতের বিরুদ্ধে হচ্ছে। তা ছাড়া শাহবাগে আপনারাই তো বিচারবহির্ভূত হত্যাকান্ডকে উৎসাহ দিয়ে আন্দোলন করেছেন।

ফেসবুকে ভাইরাল হওয়া ভিডিওতে দেখা যায়- এক যুবক তাকে মারার জন্য তেড়ে যাচ্ছেন। তখন পাশে থাকা আরেক যুবক বলে ওঠেন, ভাই উনাকে ছেড়ে দেন, উনি নিজেও ক্রসফায়ারের তালিকায় আছেন। ইমরান এইচ সরকার তখন বলেন, আমরা সরকারের অন্যায় কাজের সমালোচনা করে যাচ্ছি। এ পর্যায়ে পাশের যুবক বলে ওঠেন, এখন আপনাদের টাকা-পয়সার ভাগে বনছে না বলে আপনারা সরকারের বিরুদ্ধে কথা বলছেন।
অপর একটি ভিডিওতে দেখা যায় যে, কে বা কারা ইমরান এইচ সরকারকে লক্ষ্য করে জুতা নিক্ষেপ করছে। ঘটনার সময় উত্তেজিত একাধিক যুবক তাকে ঘেরাও করে ধরে এবং তার উপর চড়াও হওয়ারও চেষ্টা করলে তার (ইমরান সরকার) ঘনিষ্ট লোকজন দ্রুত ঘটনাস্থল থেকে তাকে রক্ষা করে নিরাপদ স্থানে নিয়ে যায়।

এদিকে ঢাকার মানবজমিন-এর এক রিপোটর্টে বলা হয়েছে যে, ওই এলাকায় স্থায়ীভাবে বসবাতরত মৌলভীবাজার জেলার এক আদি বাসিন্দার সঙ্গে কথা হয় মানবজমিনের। মঙ্গলবার সন্ধ্যায় তিনি ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেন। নাম প্রকাশ না করার শর্তে বাংলাদেশী বংশোদ্ভূত ওই আমেরিকান বলেন- হ্যাঁ, লাঞ্ছনার ঘটনা ঘটেছে। তবে ফেসবুকে এবং সংবাদ মাধ্যমে ইমরান এইচ সরকারের ওপর জুতা নিক্ষেপের খবর বেরিয়েছে সেটি বোধহয় সঠিক নয়। ভাইরাল ওই ভিডিওতেও এমন কোন দৃশ্য দেখা যায়নি।