Home>সকল সংবাদ>জাতীয়>বরিশাল>আমতলীতে ব্যবসা প্রতিষ্ঠান উচ্ছেদ
বরিশাল

আমতলীতে ব্যবসা প্রতিষ্ঠান উচ্ছেদ

আসতলী- কুয়াকাটা মহাসড়কের আমতলী একেস্কুল ও চাওাা খালের বাঁধের দু’ধারে এবং চৌরাস্তা এলাকায় অবৈধ ভাবে গড়ে ওঠা সহা¯্রাধিক ব্যবসা প্রতিষ্ঠান বুধবার বিকেল ৫টায় উচ্ছেদ করা হয়। উচ্ছেদের সময় একর পর এক দোকান পাট বুলডোজারের সাহায্যে গুরিয়ে দেওয়া হয়। এসময় অনেকেই তাদের দোকানের মালামাল অন্যত্র সড়াতে না পাড়ায় সেগুলো ক্ষতিগ্রস্ত হয় বলে জানান ব্যবসায়ীরা। উচ্ছেদ অভিযানে নেতৃত্ব দেন এস্টেট ও আইন কর্মকর্তা (সওজ) ও উপসচিব মো: মাহবুবুর রহমান ফারুকী এবং পটুয়াখালী সওজের নির্বাহী প্রকৌশলী মীর নিজাম উদ্দিন আহম্মেদ। অভিযানে দুটি বুলডোজার এবং শতাধিক শ্রমিক অংশ নেয়। অভিযানের সময় আমতলী উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো: সরোয়ার হোসেন ও আমতলী উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) কমলেশ চন্দ্র মজুমদার উপস্থিত ছিলেন। অভিযানের সময় ফায়ার সার্বিসের গাড়ি, এ্যাম্বুলেন্স ও বিদ্যুৎ বিভাগের কর্মীদের উপস্থিত রাখা হয়। এছাড়া আমতলী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মো: আলাউদ্দিন মিলন এর নেতৃত্বে বিপুল সংখ্যক পুলিশ মোতায়েন করা হয়।
পটুয়াখালী সওজের নির্বাহী প্রকৌশলী মীর নিজাম উদ্দিন জানান, বার বার নোটিশ দিয়েও সড়কের জমি থেকে অবৈধ দোন পাট সড়ানো যায়নি। গত ২৩ জুলাই সড়কের জমি ছেড়ে দেওয়ার জন্য মাইকিং করা হয়। তার পরও যখন এসকল অবৈধ দোকান না সড়ালে বুধবার বিকেল ৫টা থেকে আমরা আমতলী একেসউল, বটতলা ও চৌরাস্তা এলকার সড়কের জমিতে অবৈধ ভাবে গড়ে ওঠা ব্যবসা প্রতিষ্ঠান উচ্ছেদ করি।
এস্টেট ও আইন কর্মকর্তা (সওজ) ও উপসচিব মো: মাহবুবুর রহমান ফারুকী জানান, সড়ক সম্প্রসারনের জন্য অবৈধ দখলদারদের বার বার নোটিশ দিয়ে এবং মাইকিং করেও যখন সড়ানো যাচ্ছিল না তখন নিরুপায় হয়ে আমরা উচ্ছেদ করি।