প্রবাসী বার্তা

Probashi Barta Corporation (USA)

মালয়েশিয়ায় বাংলাদেশী শিক্ষার্থীদের ইয়ুথ সামিট ২০২০ অনুষ্ঠিত

কায়সার হামিদ হান্নান ,মালয়েশিয়া

বাংলাদেশী স্টুডেন্টস’ ইউনিয়ন মালয়েশিয়া (বিএসইউএম) এর উদ্যোগে বাংলাদেশী ছাত্রদের নিয়ে মালয়েশিয়ায় ১ম বারের মতো আয়োজিত হল ‘বিএসইউএম ইয়ুথ সামিট ২০২০’। ২৯ ফেব্রুয়ারি মালয়েশিয়ার ২০ টির অধিক বিশ্ববিদ্যালয়ের বাংলাদেশী ছাত্র সংগঠনগুলোর নেতৃবৃন্দ এবং বিভিন্ন ক্লাবের প্রধানদের নিয়ে ইউনিভার্সিটি পুত্রা মালয়েশিয়ায় (ইউপিএম) এটি অনুষ্ঠিত হল।

এই অনুষ্ঠানটি সকাল ১০ টায় শুরু হয়ে শেষ হয় বিকাল ৫.৩০ টায়। একবিংশ শতাব্দীর চ্যালেঞ্জ মোকাবিলা করে নেতৃত্বের গুণকে শাণিত করার লক্ষ্যে শিক্ষাবিদ, উদ্যোক্তা ও সংগঠকদের আলোচনার পাশাপাশি ছিল ব্রেইন স্টোর্মিং ও গ্রুপ এক্টিভিটিমূলক আয়োজন। অংশগ্রহণকারী সকলকে প্রোগ্রাম শেষে সার্টিফিকেট ও সকল বিশ্ববিদ্যালয় সংগঠনকে সম্মাননা স্বরূপ ক্রেস্ট প্রদান করা হয়।

বিএসইউএম এর সভাপতি জহিরুল ইসলাম বলেন, প্রতিষ্ঠালগ্ন থেকেই বিএসইউএম মালয়েশিয়ায় অধ্যনরত ছাত্র-ছাত্রীদের একাডেমিক ও নন-একাডেমিক দক্ষতা বৃদ্ধির জন্য সব ধরনের আয়োজন করে আসছে ও ভবিষ্যতেও করবে। তিনি আরও বলেন, বিভিন্ন সামাজিক দায়িত্ব পালন এবং সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের আয়োজন করে সকলকে একই ছাতার নিচে এনে নিজেদের গঠন ও দেশ গঠনে আত্মনিয়োগের আহ্বান জানানোই আমাদের উদ্দেশ্য। এই অনুষ্ঠানটি মালয়েশিয়ায় অধ্যয়রত বিভিন্ন ক্যাম্পাসের বাংলাদেশী ছাত্র-সংগঠনগুলোর প্রতিনিধিদের একটি মিলনমেলায় পরিণত হওয়ার পাশাপাশি বাংলাদেশের আগামীর নেতাদের দেশের জন্য একসাথে কাজ করে দেশকে বিশ্ব দরবারে সম্মানজনকভাবে উপস্থাপনে নেতৃত্ব প্রদানের একটা প্ল্যাটফর্ম হয়েছে বলে আমি বিশ্বাস করি।

সাধারণ সম্পাদক এনামুল হক (ইমন) বলেন, মালয়েশিয়াস্থ বাংলাদেশী ছাত্রদের দক্ষতা বৃদ্ধি ও ক্যারিয়ার গঠনে সহায়ক প্রোগ্রাম বাস্তবায়নে বিএসইউএম বদ্ধপরিকর, এই অনুষ্ঠানটি এমনই একটি উদ্যোগ। এ বছরেই শিক্ষা-সেমিনারসহ এমন আরও বেশ কিছু অনুষ্ঠান আয়োজনের আশাবাদও তিনি ব্যক্ত করেন। তিনি আরও বলেন- আগামীর বাংলাদেশ হবে মেধাবী ও দক্ষদের নেতৃত্বের বাংলাদেশ আর বিএসইউএম সেই কাঙ্ক্ষিত নেতৃত্ব তৈরির অন্যতম গুরুত্বপূর্ণ একটি প্ল্যাটফর্ম হবে ইনশা-আল্লাহ।

সংগঠনটির সভাপতি জহিরুল ইসলাম এর নেতৃত্বে ও সাধারণ সম্পাদক এনামুল হক (ইমন)-এর সমন্বয়ে ইয়ুথ সামিট অর্গানাইজিং কমিটিতে আরও ছিলেন সংগঠনের জয়েন্ট সেক্রেটারি মির্জা মুস্তাফিজুর রহমান, এহসানুল হক খান শুভ, সাংগঠিক সম্পাদক আব্দুল্লাহ আল তৌহিদ। লজিস্টিক সাপোর্টে ছিলেন সহ-সভাপতি বুরহান উদ্দিন, শরীফ হোসেন, ট্রেজারার আলমগীর হোসেন, কনফারেন্স সেক্রেটারি মো. ইমতিয়াজ হোসাইন, পাবলিক রিলেশন্স সেক্রেটারি জোহরুল ইসলাম। ভলান্টিয়ার হিসেবে ছিলেন সহকারি কনফারেন্স সেক্রেটারি ইয়াসমিন জমাদার দীপা, নাহিদ, আইরিন, সাদী প্রমুখ। অনুষ্ঠানটি উপস্থাপনা করেন নাসরিন নাহার নাশা।

প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন মালয়েশিয়া ইউথ কাউন্সিলের সভাপতি জুফিতরি জোহা, বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন ইউনিভার্সিটি পুত্রা মালয়েশিয়া ভাইস চ্যান্সেলর প্রফেসর দাতিন পাদুকা ড. আইনি ইদ্রিস,পুত্রা ইন্টারন্যাশনাল সেন্টারের ডেপুটি ডিরেক্টর প্রফেসর ড. হাসফালিনা চে ম্যান, সংগঠনের উপদেষ্টা সুরাইয়া নাহার, সংগঠনের ফাউন্ডার -প্রেসিডেন্ট মোহাম্মদ মহিউদ্দিন মাহী, সাবেক সভাপতি ড. ফয়জুল হক, বিশিষ্ট ব্যবসায়ী রাশেদ বাদল ও মোশাররফ হোসেন।

উক্ত সামিটে কি-নোট স্পিকার ছিলেন আন্তর্জাতিক খ্যাতি সম্পন্ন স্বনামধন্য ট্রেইনার, লিডারশীপ ও সফট স্কিল বিশেষজ্ঞ ফিউচার লিডারস এর ফাউন্ডার ও সিইও কাজী এম আহমেদ। দ্রুত পরিবর্তনশীল বিশ্বে কীভাবে নেতৃত্ব দক্ষতা বাড়ানো যায় বিভিন্ন উদাহরন, রোল প্লের মাধ্যমে চমৎকার ভাবে তিনি তা ব্যাখ্যা করেন।
এছাড়া, নেতৃত্বের দক্ষতা বৃদ্ধির পদ্ধতি বিষয়ে বিভিন্ন ট্রেনিং সেশন পরিচালনা করেন ব্রিটেনের সোয়ানসি বিশ্ববিদ্যালয়ের সিনিয়র লেকচারার ড.মোকাররম হোসাইন, গ্রীন ইউনিভার্সিটির সহকারী অধ্যাপক ওসমান ফারহান আল হারুন, সংগঠনের ফাউন্ডার প্রেসিডেন্ট মরক্কোর আগারিদ আন্তর্জাতিক বিশ্ববিদ্যালয়ের সহকারি অধ্যাপক মোহাম্মদ মহিউদ্দীন মাহি। অনুষ্ঠানের আইস ব্রেকিং সেশন পরিচালনা করেন বিএসইউএম এর সাধারণ সম্পাদক এনামুল হক (ইমন)।

অনুষ্ঠানে অংশগ্রহণকারী শিক্ষার্থীরা মালয়েশিয়ায় ১ম বারের মতো বাংলাদেশী ছাত্র-ছাত্রীদের নিয়ে এমন আয়োজনের জন্য বিএসইউএম কে ধন্যবাদ জানান। এটি শুধু বিএসইউএম নয়, মালয়েশিয়ায় অধ্যয়নরত ছাত্র-ছাত্রীদের জন্য মাইলফলক হয়ে থাকবে বলে তারা মনে করেন। এমন আয়োজনের অংশ হতে পেরে তারা নিজেদের ভাগ্যবান মনে করেন। তারা আশাবাদ ব্যক্ত করেন যে, বিএসইউএম বাংলাদেশী ছাত্র-ছাত্রীদের নেতৃত্ব ও ক্যারিয়ার দক্ষতা বৃদ্ধিতে এমন আয়োজন অব্যাহত রাখবে।

অনুষ্ঠানটির প্রধান স্পন্সর ছিল ফেলমো টেক এবং মিডিয়া পার্টনার ছিল এনটিভি। এছাড়াও অনুষ্ঠানে বিভিন্ন প্রিন্ট ও ইলেক্ট্রনিক মিডিয়ার প্রতিনিধিরা উপস্থিত ছিলেন।
প্রসঙ্গত উল্লেখ্য, ২০১৪ সালে প্রতিষ্ঠিত বিএসইউএম মালয়েশিয়ায় অধ্যয়নরত ছাত্র-ছাত্রীদের সর্ব বৃহৎ সংগঠন। ধর্ম, বর্ণ নির্বিশেষে সকল বাংলাদেশী ছাত্রদের নিয়ে গড়া এই সংগঠন প্রতিষ্ঠালগ্ন থেকেই ছাত্র-ছাত্রীদের জন্য ক্যারিয়ার সেমিনার, খেলাধুলা, সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানসহ গঠনমূলক ও সৃজনশীল নানা ধরনের প্রোগ্রাম বাস্তবায়ন করে আসছে। এছাড়া, মালয়েশিয়ার বিভিন্ন পেশাজীবী সংগঠনের সাথে সহযোগিতার ভিত্তিতে বাংলাদেশীদের জন্য বিভিন্ন গঠনমূলক কাজেও বিএসইউএম বলিষ্ঠ ভূমিকা রেখে আসছে।

Posts Grid

সর্বশেষ বার্তা