শিরোনাম
  • রাজধানীতে গুলি করে আড়াই লাখ টাকা ছিনতাই

  • সিলেটে জাল টাকা ও মেশিনসহ ৩ জন আটক

  • শৈলকূপায় গলিত লাশ উদ্ধার
  • বাসের মধ্যে প্রসব, সহৃদয় চালক নিয়ে গেলেন হাসপাতালে
  • মুন্সীগঞ্জে ইউপি চেয়ারম্যানের স্ত্রীর লাশ উদ্ধার
  • টাঙ্গাইলে নারী এনজিও কর্মীকে কুপিয়ে টাকা ছিনতাই
চিরসত্য
পক্ষান্তরে যারা ঈমান এনেছে এবং সৎকাজ করেছে। তাদের প্রাপ্য পরিপুর্ণভাবে দেয়া হবে। আর আল্লাহ অত্যাচারীদেরকে ভালবাসেন না। সুরা আল ইমরান, আয়াত-৫৭
সাম্প্রতিক
প্রবন্ধ
মিস ক্যালিফোর্নিয়া বাংলাদেশি মেয়ে

১৪ বছর বয়সেই ‘আউটস্ট্যান্ডিং টিন’। ২০১০ সালে মিস ক্যালিফোর্নিয়া। তারপর মিস আমেরিকায় সেরা ১০। মেয়েটির নাম আরিয়ানা আফসার, বন্ধুরা ডাকে আরি। তার বাবা বাংলাদেশি।

লস অ্যাঞ্জেলেসের ইউনিভার্সিটি অব ক্যালিফোর্নিয়ায় পড়েন আরি। গ্র্যাজুয়েট হয়েছে ওয়েস্টভিউ হাই স্কুল থেকে। গত মাসের ২২ তারিখে তার জš§দিন ছিল। ১৯৯১ সালে ক্যালিফোর্নিয়ার সান ডিয়েগোতে তার জš§। সে হিসেবে বয়স এখন ২৪। পুরো নাম আরিয়ানা আয়েশা আফসার। আমেরিকান আইডল আটের ছিল সেমিফাইনালিস্ট। গান তার প্রথম প্রেম। গান আর লেখেনও। বিশ্ববিদ্যালয়ে তিনি পড়েন এথনোমিউজিকোলজি।

এটি এমন বিষয়, যেখানে সংস্কৃতি ও সমাজ থেকে গান কিভাবে উঠে আসে তা-ই পড়ানো হয়। উল্টোটাও হয়, মানে গান দিয়ে সমাজকে বোঝার চেষ্টা করা হয়। ২০১৩-এর মে মাসে আরি তার সহপাঠী অ্যান্ড্র সেডারের সঙ্গে ‘ট্রেড হার্টস’ নামের একটি গান পরিবেশন করেন। হƒদয়ভাঙা বিষয়- কষ্টদায়ক গান ছিল সেটি। আরি নিজেই বলেছেন, গানটি খুব মন খারাপ-করা। যাদের হƒদয় ভেঙেছে, তারা সবাই গানটি পছন্দ করবে। তার গাওয়া বনি রেইটের ‘আই ক্যানট মেক ইউ লাভ মি’ গানটি শ্রোতাপ্রিয় হয়েছিল।

মিস ক্যালিফোর্নিয়া বাংলাদেশি২০১৩-এর জানুয়ারিতে গানটি প্রকাশিত হয়েছে। আগের বছর ডিসেম্বরে নিজের গাওয়া ব্র“নো মার্সের ‘লকড আউট অব হ্যাভেন’ গানটি প্রকাশ করেছিল। গানটির- তুমি আমাকে এমন অনুভব দাও যেন স্বর্গে আছি- বাক্যটি তার খুব পছন্দের। ক্যালভিন হ্যারিসের সুইট নাথিং গানটি তিনি গেয়েছিলেন একই বছরের ফেব্র“য়ারিতে। সে বছরের সেপ্টেম্বরে তিনি কিফার শেকেলফোর্ড (কিবোর্ড), জেসন পিটস (গিটার), জে. জনসন (বেইজ গিটার) এবং জি জনসনকে নিয়ে দল গঠন করেন। রিহানার আই ওয়ান্ট ইউ টু স্টে গেয়ে দলের (পারকাসন) আত্মপ্রকাশ। নভেম্বরে তিনি গেয়েছিলেন জেসন মার্জের ‘লাকি’।

 নভেম্বরে র‌্যাপার জর্জ ওয়াটস্কির সঙ্গে মিউজিক ট্যুরে বেরিয়ে আসর জমিয়েছিলেন পুরো ইউরোপে। আরিয়ানা জ্যাজ এবং পপ ঘরানার গান গান বেশি। সেলিন ডিওন, এলা ফিটজেরাল্ড এবং রেজিনা স্পেক্টরের ভক্ত তিনি। ওয়াল্ট ডিজনির মেক ইওর মার্ক অন্য দ্য ওয়ার্ল্ড’ ক্যাম্পেইনের তিনি লিড ভোকালিস্ট। আমেরিকান আইডলের ৮ নম্বরটি হয়েছিলেন ২০০৯ সালে। সাইমন কোয়েল, পওলা আবদুল এবং র‌্যান্ডি জ্যাকসন ছিলেন বিচারক। ৩৬ জনের সঙ্গে সেমি ফাইনালে উঠেছিলেন আরিয়ানা। গেয়েছিলেন সুইডিশ পপ গ্র“প অ্যাবার দ্য উইনার টেকস ইট অল। এটি প্রেম ভেঙে যাওয়া নিয়ে একটি লোকগাথা। গানটি আরিয়ানা বাছাই করেছিলেন, কারণ তার বাবা এটি প্রায়ই গুণগুণ করে গেয়ে থাকেন।

আরিয়ানা অবশ্য এ সেশনেই বাদ পড়ে যান, যদিও বিচারকরা তার বিষয়ে ছিলেন উ”ছ¡সিত। যেমন- সাইমন কোয়েল বলেছিলেন, ও অন্যরকম ছিল; কিš‘ হঠাৎ কি যেন হয়ে গেল। তারপর আরিয়ানা বলেছিলেন, একটা দিন খারাপ যেতে পারে, তবে সেদিনটা ছিল বেশি খারাপ। এবার আসি আরিয়ানার অভিনয় প্রসঙ্গে। আরি অভিনয় করতেও ভালোবাসেন। এ বছরই তার অভিনীত একটি পাঞ্জাবি ছবি মুক্তি পেয়েছে। নাম মৌজ মাস্তিয়া। কমেডি ধাঁচের এ ছবিতে আরির চরিত্রের নাম ডলি। ওএমজি! ইএমটি! এবং আনইউজুয়াল সাসপেক্ট নামের টিভি সিরিজেও অভিনয় করেছেন আরি। জানুয়ারিতে ইপি (এক্সটেন্ডেড পে¬- একটার বেশি গান থাকে, তবে অ্যালবাম বলা যায় না) নিয়ে আসছেন আরি। এটি প্রযোজনা করেছে বিশ্বখ্যাত সংগীত প্রযোজনাপ্রতিষ্ঠান টিইকে- যারা মাইলি সাইরাস, সেলিন ডিওনের মতো শিল্পীর অ্যালবাম করে থাকে। আরিয়ানা লেইজ চিপস খেতে পছন্দ করেন। হাতে মেহেদি দিতেও ভালো লাগে। শাশা নামের এক গয়না নির্মাতাপ্রতিষ্ঠানের মডেল তিনি। বয়স্কদের সঙ্গ দিতে বন্ধুদের নিয়ে একটি কাব খুলেছেন সম্প্রতি।

Back To Top